এক মুঠো খাবারের জন্য এসে প্রচণ্ড গরমে ছটফট করতে করতে মৃত্যু কোলে রিকশা চালক এক বৃদ্ধ,

বরিশালে প্রচণ্ড গরমে হঠাৎ ছটফট করতে করতে রাজা মিয়া (৬৭) নামের এক রিকশাচালকের মৃত্যু হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকালে শহরের ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়কের ল্যাবএইড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে এ ঘটনা ঘটে।রিকশাচালক রাজা বরিশালের মথুরানাথ স্কুল সংলগ্ন বুলবুল মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকতেন। প্রাথমিকভাবে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন, প্রচণ্ড গরমে হিটস্ট্রোক করে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, রাজা মিয়া রিকশা নিয়ে ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর সড়কের ল্যাবএইড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে ছিলেন। হঠাৎ করে তিনি অসুস্থ হয়ে কাপুনি দিয়ে মাটিতে পড়ে যান। তাঁকে উদ্ধার করে ল্যাবএইডে রেখেই সেবা দেওয়ার চেষ্টা চালানো হয়। পরে বরিশাল জেনারেল (সদর) হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

বরিশাল কোতোয়ালি মডেল থানার সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) রিয়াজ বলেন, ‘ল্যাবএইডে রাখা অবস্থায় রাজা মিয়ার মেয়ে মাহিনুর ও ছেলে ইমনকে খবর দেওয়া হয়। তাঁরা দ্রুত ঘটনাস্থলে চলে আসে। পরে রাজা মিয়ার সন্তানদের উপস্থিতিতে তাঁকে সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়।’

বরিশাল জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. আফিয়া সুলতানা পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, ‘এর আগে রাজা মিয়ার কোনো ধরনের অসুস্থতা লক্ষ্য করা যায়নি। তবে তিনি রোজা রেখে রিকশা চালাতেন। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, প্রচণ্ড গরমের মধ্যে রোজা রেখে পরিশ্রম করায় হিটস্ট্রোক করে তিনি মারা গেছেন।’

রাজা মিয়ার ছেলে ইমন মিয়া জানান, তাঁর বাবার মরদেহ গ্রামের বাড়ি ঝালকাঠিতে নেওয়া হয়েছে। সেখানেই রাজা মিয়াকে দাফন করা হবে।এদিকে, বরিশাল আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক নাসির উদ্দিন জানিয়েছেন, আজ দুপুর ২টার দিকে বরিশালের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। চলতি মৌসুমে গত ২৫ এপ্রিল বরিশালে সর্বোচ্চ ৩৮ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা উঠেছিল। #সংগৃহীত।

Facebook Comments Box