করোনায় নরেন্দ্র মোদির চাচির মৃ’ত্যু!

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছ;ড়ে পড়েছে ভা;রতে। প্রা;ণ;ঘাতী এই ভাইরাসের তাণ্ডবে দেশটির বি;পর্য;স্ত অবস্থা। করোনা পরিস্থিতি সামাল দিয়ে গিয়ে একেবারে হিমশিম অবস্থা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। এর মধ্যেই খারা;প খবর পেলেন।

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মোদির চাচি নর্মদাবেন মোদির মৃ;ত্যু হয়েছে। তার বয়স হয়েছিল ৮০ বছর। ১০ দিন আগে সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাকে। সেখানে তার করোনাভাইরাসের চিকিৎসা চলছিল।

প্রধানমন্ত্রীর ছোট ভাই প্রহ্নাদ মোদি জানিয়েছেন, তাদের চাচিকে ১০ দিন আগে সিভিল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। করোনাভাইরাস সংক্রমণের জন্য তার অ;বস্থার অবন;তি হ;ওয়ায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। সোমবার রাতে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থা;য়ই তার মৃ;ত্যু হয়েছে। ফলে মোদি পরিবারে শোক নেমে এসেছে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে রেকর্ড সংখ্য;ক মৃ;ত্যু ও সংক্রমণের সা;ক্ষী হয়েছে ভারত। এই সম;য়ের মধ্যে দেশটিতে মা;রা গেছে ৩ হাজার ২৯৩ জন করো;না রোগী। ভারতে করোনার ইতিহাসে এটিই একদিনে সর্বোচ্চ মৃ;ত্যুর রেকর্ড।

এ নিয়ে দেশটিতে মোট মৃ;ত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ১ হাজার ৮৭ জনে। আর নতুন করে সংক্রম;ণ শনাক্ত হয়েছে রেকর্ড ৩ লাখ ৬০ হাজার ৯৬০ জনের শ;রীরে। ফলে ভারতে মোট ক;রোনা; আক্রান্তে;র সংখ্যা ১ কোটি ৭৯ লাখ ৯৭ হাজার ২৬৭।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) সকালে কেন্দ্রীয় সরকার প্রচারিত স্বাস্থ্য বুলেটিনের বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে দেশটির গণমাধ্যমগুলো।গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে যথাক্রমে- মহারাষ্ট্রে ৬৬ হাজার ৩৫৮, উত্তর প্রদেশ

৩২ হাজার ৯২১ জন, কেরালা ৩২ হাজার ৮১৯, কর্নাটক ৩১ হাজার ৮৩০ এবং দিল্লিতে ২৪ হাজার ১৪৯ জনের

শরীরে। গত ২৪ ঘণ্টায় মো;ট সংক্রম;ণের ৫২ শতাংশই এই পাঁ;চটি ;রাজ্যে। আর স;র্বোচ্চ ৮৯৫ জনে;র মৃ;ত্যু হয়ে;ছে ম;হারাষ্ট্রে।

Facebook Comments Box