গর্ভে সন্তান, রোজা রেখেও করোনা রোগীদের সেবা করছেন তিনি

করোনাকালে ভারতের গুজরাটের এক নারীর সেবিকা সন্তানসম্ভবা হয়েও কভিড ডিউটিতে ফাঁকি দিলেন না। সুরাটের হাসপাতালের নার্স ন্যান্সি আয়েজা মিস্ত্রি সেবা দেওয়া চালিয়ে যাচ্ছেন। রমজানের মাসে রোজা রেখেই নিয়মিত হাসপাতালে নিজের কর্তব্য পালন করে চলেছেন তিনি।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে জানা গেছে, সুরাটের অটল কভিড-১৯ সেন্টারে কাজ করেন ন্যান্সি। তিনি চার মাসের সন্তানসম্ভবা। প্রেগন্যান্ট অবস্থায় করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি যে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেকটাই বেশি, তা স্বীকার

করে নিয়েছেন চিকিত্‍সকরাও। এমনকি মায়ের শরীর থেকে গর্ভস্থ সন্তানের শরীরেও সংক্রমিত হতে পারে ভাইরাসে। কিন্তু সেই সাবধানবাণী টলাতে পারেনি ন্যান্সিকে। সব ঝুঁকি মাথায় নিয়েই দিনে অন্তত ৮ থেকে ১০ ঘণ্টা রোজ ডিউটি করছেন তিনি। রোজা রাখতেও ভোলেননি ন্যান্সি আয়েজা মিস্ত্রি।

সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘আমার গর্ভে সন্তান আছে ঠিকই, কিন্তু আমার কাজটাও আমার কাছে গুরুত্বপূর্ণ। আল্লাহর ইচ্ছায় আমি রমজানের পবিত্র মাসে রোগীদের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি।’

একজন হবু মা হিসেবে নিজের দায়িত্ব কর্তব্যকেও হেলাফেলা করছেন না ন্যান্সি। সন্তানের গায়ে যাতে আঁচ না লাগে সে বিষয়েও নজর রাখছেন। গত বছর করোনা সংক্রমণের প্রথম পর্যায়েও সুরাটের ওই একই সেন্টার থেকে করোনা

রোগীদের সেবা করেছিলেন তিনি। দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভাইরাস হয়ে ওঠেছে আরও ভয়ানক। তাই নিজের স্বার্থের জন্য কাজের ময়দান ছেড়ে যেতে রাজি নন ন্যান্সি।সূত্র: দ্য ওয়াল।

Facebook Comments Box