বেগম জিয়া’র শারীরিক অবস্থা নিয়ে যা বললেন মির্জা ফখরুল

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি’র চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া এখনও করোনারি কেয়ার ইউনিটে (সিসিইউ) চিকিৎসাধীন বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

মঙ্গলবার (৪ মে) সকালে জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও মহান মে দিবস-২০২১ উপলক্ষে এক ভার্চ্যুয়াল আলোচনা সভায় তিনি এই কথা জানান।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা সবাই বেগম খালেদা জিয়ার অসুস্থতার খবরে উদ্বিগ্ন। এখনও উদ্বেগের মধ্যে আছি, তাঁর শারীরিক অবস্থা কী রকম, এই নিয়ে? আপনারা সবাই শুনেছেন যে, গতকাল তাঁর একটু শ্বাসকষ্ট হওয়ায় সিসিইউ-তে নেওয়া হয়েছে। এখনও তিনি সিসিইউ-তে আছেন। অক্সিজেন দেওয়া হচ্ছে। তবে এখন তাঁর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল আছে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা আল্লাহর কাছে তাঁর জন্য দোয়া চাইছি, শুধু দল নয়, সমগ্র জাতি আজ প্রার্থনা করছেন। সবাই দোয়া করছেন, এই দেশের স্বাধীনতার সার্বভৌমত্বের শেষ আশ্রয়স্থল, যাকে গণতন্ত্রের একমাত্র প্রহরী বলা যায়, তিনি যেনো দ্রুত সুস্থতা লাভ করেন।

আরো পড়ুনঃ- স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পারছেন না জিৎ

টিকা নিয়েও করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন টলিউড সুপারস্টার জিৎ। গত ২০ এপ্রিল সকালে নিজের ইনস্টাগ্রামে এক পোস্টের মাধ্যমে বিষয়টি জানিয়েছিলেন তিনি। চিকিৎসায় সেরে উঠেছেন জিৎ। আপাতত তিনি সুস্থ।

করোনা মুক্ত হলেও স্বস্তির নিঃশ্বাস নিতে পারছেন না জিৎ। সোমবার (৩ মে) সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে সে কারণ জানিয়েছেন এ অভিনেতা।

তিনি লেখেন, ‘ভালো খবর হলো, আমার কোভিড টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। কিন্তু বাবা-মায়ের কোভিড পজিটিভ। এটা ততটাও ভালো খবর না। তাদের জন্য প্রার্থনা করবেন। আমার সুস্থতার জন্য যারা দোয়া করেছেন তাদেরকে অনেক ধন্যবাদ।’

নিজের পোস্টে সবাইকে মাস্ক ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব মেনে চলা আর হাত স্যানিটাইজ করার পরামর্শ দিয়েছেন জিৎ।

এর আগে গত ১৬ মার্চ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতাল থেকে করোনার টিকা নিয়েছিলেন জিৎ। টিকা নেওয়ার ছবি ইনস্টাগ্রামেও পোস্ট করেছিলেন অভিনেতা। টিকার ডোজ নেওয়ার পরেও করোনা শনাক্ত হলো তার শরীরে।

Facebook Comments Box