মাস্ক ব্যবহার না করলে কঠোর ব্যবস্থা

দেশে করোনার সংক্রমণ রোধে নানা রকম দিক নির্দেশনা দিচ্ছে সরকার। এবার বাসার বাইরে মাস্ক ব্যবহার না করলে কঠোর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানিয়েছে সরকার। সোমবার (২৬ এপ্রিল) সরকারি এক তথ্য বিবরণীতে এ কথা জানানো হয়।

সেখানে বলা হয়েছে হয়েছে, কোনো জরুরি কাজে কেউ ঘরের বাইরে গেলে কোভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে তাকে মাস্ক ব্যবহার করার জন্য সরকার বারবার নির্দেশনা দিয়েছে। ‘কিন্তু লক্ষ্য করা যাচ্ছে, অনেকেই এ নিদের্শনা অমান্য করছেন। এক্ষেত্রে বাইরে চলাফেরার সময় মাস্ক ব্যবহার না করলে সরকার কঠোর আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’ করোনার সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা পেতে প্রয়োজনে প্রত্যেককে দু’টি মাস্ক ব্যবহার করার জন্য পরামর্শ দিচ্ছে সরকার।

Read More – মাস্ক না পরায় জরিমানা গুনতে হলো থাই প্রধানমন্ত্রীর

সরকারের জরুরি একটি বৈঠকে মাস্ক না পরায় থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ চান-ওচাকে ছয় হাজার বাথ (১৯০ মার্কিন ডলার) জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার (২৬ এপ্রিল) উক্ত এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বলে জানায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গণমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট।

থাই মন্ত্রী প্রায়ুথ তার ফেসবুক পাতায় বৈঠকের একটি ছবি পোস্ট করেন। যেখানে দেখা যায়, মাস্ক ছাড়াই তিনি বৈঠকে অংশ নিচ্ছেন। যদিও ছবিটি পরে সরিয়ে নেওয়া হয়। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের। ওই ছবি প্রকাশের পর প্রায়ুথকে জরিমানা করা হয় বলে জানান ব্যাংককের গভর্নর অশ্বিন ওয়ানমুয়াং।

প্রসঙ্গত, থাইল্যান্ডে সোমবার দুই হাজার ৪৮ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়। যদিও অভিযোগ আছে, দেশটির সরকার করোনাভাইরাস সংক্রমণ এবং মৃত্যু নিয়ে সঠিক তথ্য দিচ্ছে না। এছাড়া রাজধানী ব্যাংককসহ থাইল্যান্ডের ‍৪৮টি প্রদেশে মাস্ক পরার বাধ্যবাধকতার সময় বাড়ানো হয়েছে এবং নিয়ম আরো কঠোর করা হয়েছে। সেখানে এখন একমাত্র বসতবাড়ির ভেতর ছাড়া সব জায়গায় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। এমনকি ব্যক্তিগত গাড়িতে একজনের বেশি আরোহী থাকলেও মাস্ক পরতে হবে।

সোমবার থেকেই নতুন এই নিয়ম কার্যকর হয় এবং প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথই প্রথম ব্যক্তি যিনি ওই আইনে প্রথম জরিমানা দিতে যাচ্ছেন। যদিও এ অপরাধে সর্বোচ্চ জরিমানা ২০ হাজার বাথ (৬৩৯ মার্কিন ডলার)।

অশ্বিন সোমবার তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে এ তথ্য জানিয়ে লেখেন, ‘আমি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছি এটা কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে আরোপিত স্বাস্থ্যবিধির লঙ্ঘন। তিনি জরিমানা দিতে রাজি হয়েছেন।’ যদিও এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রী প্রায়ুথ এ বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করেননি। তবে ফেসবুকে পোস্ট করা বৈঠকের ছবিতে একমাত্র তাকেই মাস্ক ছাড়া দেখা যায়। বাকি সবার মুখে মাস্ক ছিল।

অশ্বিন জানান, প্রধানমন্ত্রী ব্যাংককের কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাদের তিনি মাস্ক পরার স্থানীয় নিয়ম লঙ্ঘন করেছেন কিনা সেটা নিয়ে তদন্ত করতে বলেছেন।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী বিধিনিষেধ নিয়ে সিটি হল পরিদর্শনে গিয়েছিলেন। সেখানে বহিরাগত কেউ আসলে তাকে অবশ্যই মাস্ক পরতে হবে সেটা স্পষ্ট করে বলা আছে। তিনি তা না মানায় তাকে এই জরিমানা করা হয়েছে বলে জানান আশ্বিন। সেই সঙ্গে মাস্ক পরার ব্যাপারে আরও কঠোর হওয়ার উদাহরণ হিসেবে এই জরিমানাকে দেখতে বলেছেন তিনি।

Facebook Comments Box