যে কারণে কিছু মানুষের সাথে সম্পর্ক রাখা উচিৎ নয় (নিজের বাবা-মা হলেও)

যখন আপনি বুঝবেন কারও কারও জন্য আপনার জীবনে নানামুখী সমস্যা হচ্ছে, তখন সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তটি হলো- জীবন থেকে তাদের বিদায় করা। যদিও কথাটি বলা সহজ, কিন্তু করা কঠিন। তাদের এড়িয়ে চলাও কঠিন হয়ে পরে কখনও কখনও।

তবে জীবনে তাদের প্রভাব কাটানো না গেলে জীবন হয়ে পরে দুর্বিষহ, ক্ষতিগ্রস্ত হয় ব্যক্তিগত ও আর্থিক পরিস্থিতি। নিচে আমরা এমনই কিছু কারণ উপস্থাপন করছি, যা আপনার চোখ খুলে দেবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

১. শারীরিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর

বিশেষজ্ঞরা বলেন, যে কোনো বাজে সম্পর্কে থাকলে শুধু মানসিক ক্ষতি হয় না, শরীরের উপরও এর মারাত্মক প্রভাব দেখা দিতে পারে। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, যারা নিতান্তই বাধ্য হয়ে কলহপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখেন, তাদের হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা অন্যদের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি। পাশাপাশি তাদের উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, ও স্থূলতায়ও আক্রান্ত হতে দেখা যায়।

২. আত্মবিশ্বাস নষ্ট হয়ে যায়

সম্পর্কের টানাপড়েন মানুষের আত্মবিশ্বাস নষ্ট করতে থাকে। এর ফলে আপনার আচরণে পরিবর্তন হয়, নিজের মূল্য নষ্ট হতে থাকে এবং আপনার প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত হতে থাকবেন। কারণ এই মানুষগুলোর সাথে সম্পর্ক রাখলে আপনি নিজের ক্ষমতা কী তা বোঝারও সময় পাবেন না। এসব সম্পর্ক আপনাকে উদ্বিগ্ন, মানসিক চাপ ও বিষণ্ণতায় ডুবিয়ে রাখে।

৩. পরনির্ভরশীল করে তোলে

খারাপ মানুষ সকল সিদ্ধান্ত নিজে নিতে পছন্দ করে, এমনকি আপনার সিদ্ধান্তও সে নেবে। এতে আপনার উপর তার একটি নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা হয়। ফলে ধীরে ধীরে আপনি সিদ্ধান্ত গ্রহণের ক্ষমতা হারাতে শুরু করবেন। এই কারণে আপনি জীবনের লক্ষ্যে পৌঁছানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হবেন।

৪. নিজের সম্পর্কে উদাসীন করে তোলে

বাজে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে রাখতে আপনার শখ আহ্লাদ কখন যে হারিয়ে যাবে, আপনি টেরও পাবেন না। অন্যকে খুশি রাখার প্রচেষ্টা আপনার নিজস্বতাকে নষ্ট করে দেবে। শুধু তাই নয়, আপনার একান্ত সময়, শরীর-স্বাস্থ্য, এমনকি চেহারাও নষ্ট করে দেয়।

৫. অন্যের প্রতি বিশ্বাস নষ্ট হয়ে যায়

ভুল মানুষের সাথে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে রাখতে একসময় আপনার মনে হবে সবাই বুঝি একই রকম। আপনি কাউকে আর বিশ্বাস করতে চাইবেন না। মানুষ সম্পর্কে আপনার ধারণাই পাল্টে যাবে। সীমাবদ্ধ হতে থাকবে নিজের গণ্ডি। সেক্ষেত্রে ব্যক্তিজীবনে উন্নতির সম্ভাবনা নষ্ট হয়ে যায়।

আপনি কি কখনও এমন বাজে সম্পর্কে ছিলেন? কীভাবে এমন সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে এসেছেন?

Facebook Comments Box