প্রয়োজনে কিছু এলাকা শাটডাউন করা হবে

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে ১৪ই জানুয়ারি থেকে শুরু হতে যাওয়া রাইসিনা ডায়ালগে অংশ নিচ্ছেন না পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম। এ অনুষ্ঠানের আয়োজক ওভারসিজ রিসার্চ ফাউন্ডেশন ওআরএফ-এর পক্ষ থেকে স্পিকার হিসাবে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু ঢাকার তরফে শেষ সময়ে এসে ‘না’ বলে দেয়া হয়েছে। ভারতীয় পার্লামেন্টে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাসের প্রেক্ষিতে দেশজুড়ে সৃষ্ট অস্থিরতার জেরে এর আগে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেনের সফর বাতিল এবং জেআরসিসহ ঢাকা-দিল্লি একাধিক দ্বিপক্ষীয় বৈঠক স্থগিত হয়েছে। ওই সব সফর ও বৈঠক ‘বাতিল’ প্রশ্নে দিল্লির সংবাদ মাধ্যমে নানা রকম সংবাদ প্রচার হয়েছে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অবশ্য বলছে, ওই সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আবুধাবি সফরে সঙ্গী হওয়ার কারণে রাইসিনা ডায়ালগে অংশ নিতে পারছেন না প্রতিমন্ত্রী। আজ থেকে ১৪ই জানুয়ারি পর্যন্ত বাংলাদেশের সরকার প্রধান আবুধাবি সফর করবেন। একাধিক দ্বিপক্ষীয় আয়োজনে অংশ নেয়া ছাড়াও মধ্যপ্রাচ্য পরিস্থিতি পর্যালোচনায় ওই অঞ্চলে থাকা রাষ্ট্রদূতদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক রয়েছে আবুধাবিতে।

ওই দূত সম্মেলনে সরকার প্রধানের সঙ্গে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীকে উপস্থিত থাকতে হচ্ছে।

দিল্লির অনুষ্ঠানে প্রতিমন্ত্রীর অংশগ্রহণ প্রশ্নে সৃষ্ট বিভ্রান্তি এবং এ নিয়ে কিছু সংবাদ মাধ্যমে রিপোর্ট প্রচারের প্রেক্ষিতে মন্ত্রণালয়ের তরফে আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি প্রচার করা হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে- প্রতিমন্ত্রীর দিল্লি সফর নিয়ে বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রচারের বিষয়টি সেগুনবাগিচার নোটিশে এসেছে। এ অবস্থায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানাচ্ছে যে,

আয়োজকরা যথাযথভাবেই প্রতিমন্ত্রীকে অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। কিন্তু আবুধাবিতে ওই সময়ে প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হওয়ার কারণে তিনি দিল্লির অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারছেন না। সরকারের তরফে একটি পত্রে প্রতিমন্ত্রীর অপারগতার বিষয়টি আয়োজক ওআরএফকে জানানো হয়েছে। মন্ত্রণালয় আরও জানিয়েছে- ওই সফরে দিল্লিতে প্রতিমন্ত্রীর দ্বিপক্ষীয় কোন বৈঠক বা কর্মসূচির শিডিউল ছিল না। বিজ্ঞপ্তিতে অন্য কোন ইস্যুর সঙ্গে প্রতিমন্ত্রী সফর বাতিলের যোগসূত্র নেই বলেও দাবি করেছে সেগুনবাগিচা।

Facebook Comments Box