হঠাৎ করেই বাজারে কমেছে পেঁয়াজের দাম

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানির ফলে খুচরা ও পাইকারি বাজারে কমতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। দুই দিনের ব্যবধানে দাম কমেছে ৭ থেকে ১৪ টাকা। সোমবার (৭ জুন) সকাল থেকে হিলি স্থলবন্দর এলাকায় কমতে শুরু করেছে সব ধরনের পেঁয়াজের দাম।

ভারতীয় পেঁয়াজ গত দুই দিন আগে বিক্রি হয়েছে প্রকারভেদে ৪৫ থেকে ৪৮ টাকায়। আজ সোমবার সেই পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩২ থেকে ৩৪ টাকা কেজি। দেশীয় পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রকারভেদে ৫০ থেকে ৫২ টাকায়। আজ বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৪৬ টাকায়। ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারত থেকে পেঁয়াজ আসার কারণে হিলি স্থলবন্দর এলাকায় কমতে শুরু করেছে সব ধরনের পেঁয়াজের দাম। আমদানি বেশি হলে দাম আরও কমতে পারে।

পেঁয়াজ কিনতে আসা কয়েকজন ক্রেতা জানান, হঠাৎ করে পেঁয়াজের দাম কমে আবার বৃদ্ধি হয়। এতে করে সাধারণ মানুষের জন্য অনেক কষ্টের বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। বাজার নিয়মিত মনিটরিং করা হলে পেঁয়াজসহ সব ধরনের পণ্যের বাজার নিয়ন্ত্রণে থাকবে। হিলি কাস্টমসের তথ্য মতে, গত দুই দিনে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারতীয় ১৩ ট্রাকে ৩০৮ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে।

হিলি আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশিদ হারুন বলেন, ‘আইপি না থাকায় ২৯ এপ্রিল থেকে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ ছিল। আমদানির অনুমোদন আমদানিকারকরা পেয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকেল থেকে আমদানি শুরু হয়েছে। দামও অনেকটা কমে গেছে। পেঁয়াজ আমদানি চলমান থাকবে। আশা করছি আগামীতে পেঁয়াজের দাম আরও কমবে’।

Facebook Comments Box