১৪ বছরের জেল হতে পারে সু চির

নোবেল বিজয়ী অং সান সু চি একজন বর্মী রাজনীতিক, কূটনীতিক, এবং লেখিকা যিনি মিয়ানমারের প্রথম ও বর্তমান রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা এবং ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্র্যাসির নেত্রী। মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেত্রী অং সান সু চির বিচার আগামী সপ্তাহে শুরু হবে। তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ প্রমাণিত হলে ১৪ বছরের জেল হতে পারে সু চির।

আজ সোমবার (০৭ জুন) নেপিডোতে গৃহবন্দী সু চির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তার আইনজীবী মিন মিন সোয়ে। তার আইনজীবী জানিয়েছেন, সব রাজবন্দীকে মুক্তি দিতে মিয়ানমারের জান্তার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আঞ্চলিক জোট আসিয়ান।

মিন মিন সোয়ে বলেন, ৭৫ বছর বয়সী সু চির বিরুদ্ধে মামলার বিচার ১৪ জুন থেকে শুরু হবে। সবাইকে সুস্থ ও নিরাপদে থাকতে বলেছেন সু চি। সু চির বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে। কোন মামলায় তার বিচার শুরু হচ্ছে, তা জানা যায়নি।

এর আগে সু চি আইনজীবীদের বলেছেন, জনগণ যতদিন চাইবে তার রাজনৈতিক দলের অস্তিত্ব ততদিন থাকবে। তার দলকে জান্তা সরকার ভেঙে ফেলার চেষ্টা করছে।

এ বছরের ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের সেনাবাহিনী অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকারকে উৎখাত করে। ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর কয়েক মাস ধরে গৃহবন্দি অবস্থায় আছেন তিনি । মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী অং সান সুচির দল ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসির বিরুদ্ধে অবৈধভাবে ওয়াকিটকি রেখে রাষ্ট্রের গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয়েছে।

Facebook Comments Box